ঢাকা২৩ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. ! Без рубрики
  2. Echt Geld Casino
  3. test2
  4. অর্থনীতি
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আরো
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. খেলাধুলা
  9. জাতীয়
  10. তথ্য প্রযুক্তি
  11. দেশজুড়ে
  12. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  13. বাণিজ্য
  14. বিনোদন
  15. মতামত
আজকের সর্বশেষ সবখবর

থাইরয়েড: সুস্থ থাকতে যেসব খাবার খাবেন, আর যা এড়িয়ে চলবেন:থাইরয়েড সমস্যা থেকে দেখা দিতে পারে ক্যান্সারও

admin
মার্চ ২৩, ২০২৪ ৯:১১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ডেস্ক: মানবদেহের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি গ্রন্থি হলো থাইরয়েড। এই গ্রন্থিটি গলা এবং ঘাড়ের মাঝামাঝি স্থানে অবস্থিত।

থাইরয়েড গ্রন্থিটি এই বিভিন্ন ধরনের হরমোন নিঃসরণ করার পাশাপাশি শরীরের প্রায় সব ধরনের বিপাক প্রক্রিয়ায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

তবে শরীরে থাইরয়েড হরমোন কম কিংবা বেশি দুটোই আবার সমস্যা। থায়রয়েড কম উৎপন্ন হলে তাকে বলা হয় হাইপোথাইরয়েডিজম, আর বেশি উৎপন্ন হলে বলা হয় হাইপারথাইরয়েডিজম।

থাইরয়েড সমস্যা হলে শরীরে কিছু পরিবর্তন দেখা দেয়। সময়মতো থাইরয়েডের চিকিৎসা না করালে এসব সমস্যা বাড়তে পারে। এমনকি থাইরয়েড সমস্যা থেকে দেখা দিতে পারে ক্যান্সারও।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই থাইরয়েডের চিকিৎসা দীর্ঘ মেয়াদি, কিন্তু খাওয়াদাওয়ার বিষয়ে সতর্ক হলে এই সমস্যার মোকাবিলা করা যেতে পারে।

চলুন, জেনে নেওয়া যাক থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে কী খেতে হবে আর কী খাওয়া যাবে না, সে সম্পর্কে-

থাইরয়েড গ্রন্থির কার্যকারিতা বৃদ্ধি করতে কিছু উপাদানের মাত্রা বেশি হওয়া প্রয়োজন। থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে ডায়েটে জিঙ্ক, আয়োডিন, কপার, আয়রন, ভিটামিন সি, ম্যাগনেশিয়াম, সেলেনিয়াম, ভিটামিন ই- এর সঠিক ভারসাম্য জরুরি।

থাইরয়েড সমস্যা থাকলে যেসব খাবার খেতে পারেন

কপার এবং আয়রন দুটোই থাইরডের মোকাবিলা করতে জরুরি। টাটকা মাংস, ওয়েস্টার, কাজু, গমের আটায় প্রচুর পরিমাণে কপার রয়েছে। সবুজ শাকসবজি, বিন, বিভিন্ন ধরনের ডাল, সামুদ্রিক মাছ, পোলট্রির ডিমে রয়েছে আয়রন। সেইসঙ্গে ভিটামিন সি-এর ভারসাম্য বজায় রাখতে খান লেবু, টোম্যাটো, ক্যাপসিকাম খাওয়া যেতে পারে। থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে সূর্যমুখীর তেল কিংবা বাদাম তেলে রান্না করতে পারেন, এতে ভিটামিন ই থাকে। বিভিন্ন রকম বাদাম, সূর্যমুখীর বীজ, মাশরুমে থাকে সেলেনিয়াম, যা থাইরয়েডের সমস্যা মোকাবিলা করতে প্রয়োজনীয়।

যেসব খাবার এড়িয়ে চলতে হবে

বাঁধাকপি, ফুলকপি, ব্রকোলি, ছোলা জাতীয় খাবার থাইরয়েড বৃদ্ধি করে। এছাড়াও সরিষা, মুলা, লাল আলু এড়িয়ে চলা ভালো। থাইরয়েড বেড়ে গেলে দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার যেমন পনির, চিজ ডায়েট থেকে বাদ দিন। চিনি, রান্না করা গাজর, পাকা কলা, শুকনো ফল, মধু, ময়দার রুটি, সাদা ভাত, আলু, সাদা পাস্তা, মিষ্টি শরীরে কার্বহাইড্রেটের মাত্রা বৃদ্ধি করে। থাইরয়েড থাকলে কার্বহাইড্রেট কম খাওয়াই ভালো। চা, কফি, চকোলেট, নরম পানীয়, প্রক্রিয়াজাত খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলতে হবে।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।